বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:০২ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :::
সিলেটের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিলেট ফোকাস নিউজ ডটকম এর জন্য সিলেট বিভাগসহ দেশ বিদেশে সংবাদদাতা ও জেলা উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা ইমেইলে আপনাদের সিভি পাঠাতে পারেন।
শিরোনাম ::::
সিলেটে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা মধ্য দিয়ে বিজয়ের মাসকে বরণ আব্দুল গফুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সভাপতি আফতাবকে সংবর্ধনা নির্বাচিত চেয়ারম্যান আতিকুল হককে তুরুকখলা হাড়িয়ারচর গ্রাম উন্নয়ন কমিটির অভিনন্দন হত্যার জন্য খালেদাকে মুক্তি দিচ্ছে না সরকার: সিলেটে আমির খসরু বিএনপির মিছিল, স্লোগানে মুখর সিলেট শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে রামপুরায় সড়ক অবরোধ, যান চলাচল বন্ধ চাঁপাইনবাবগঞ্জে ছুরিকাঘাতে কলেজছাত্র নিহত শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর কাল থেকে বিপিজেএ সিলেট-মাহা অভ্যন্তরীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সু-চিকিৎসার দাবীতে সিলেটে যুবদল ও ছাত্রদলের মশাল মিছিল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সামিল না হতে পরে আফসোস করতে হবে: স্যার এনাম নববধূকে নিয়ে ফিরছিলেন বাড়ি, পথে চলন্ত গাড়ি থেকে বরের লাফ দিশার শরীরে প্লাস্টিক সার্জারির গুঞ্জন! সিনহা হত্যা : ৮ম দফায় তদন্তকারী কর্মকর্তার জেরা চলছে হেফাজত মহাসচিব আর নেই পীরগঞ্জে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নিহত ৩ সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি সিলেটের ১৬ ইউনিয়ন পরিষদ এর ‘অভিভাবক’ হলেন যারা শ্রীমঙ্গলে বিএনপি নেতার কাছে হারলো নৌকা গোয়াইনঘাটের ডৌবাড়িতে ডুবলো নৌকা, বিদ্রোহী প্রার্থীর জয়
সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় ১ জনের ফাঁসি ও ১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় ১ জনের ফাঁসি ও ১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় ১ জনের ফাঁসি, ১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।
এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এক আসামীকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

আজ সোমবার সকালে এ রায় ঘোষণা করেন সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল্লাহ আল মামুন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হল, সদর উপজেলার লালপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হেকিমের ছেলে ইদ্রিস মিয়া (২৮) ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হল তার ভাই বাবুল মিয়া (২২)। খালাস হওয়া অাসামী হলেন নজরুল ইসলাম।

আদালত সূত্রে জানা যায়, মামলার বাদী নোয়াবা মিয়ার ভাই আব্দুল করিমকে ২০১০ সালের ২৭ আগস্ট সন্ধ্যায় ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে ইদ্রিস মিয়া। বাদী নোয়াবা মিয়ার ছোট বোন মনোয়ারাকে ইদ্রিস মিয়ার ভাই সিদ্দিক মিয়ার সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের কয়েক মাস পর থেকে মনোয়ারার ভাই নোয়াবাকে যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে সিদ্দিকসহ তার পরিবারের লোকজন।

যৌতক না পেয়ে মনোয়ারাকে নির্যাতন করত তার স্বামীর বাড়ির লোকজন। এ নিয়ে কয়েকবার গ্রাম্য সালিশে নির্যাতন না করার কথা বলা হলেও তারা নির্যাতন চালিয়ে যেত। এ নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলতে থাকে। পরে ২০১০ সালের ২৭ আগস্ট সিদ্দিক মিয়ার ভাই ইদ্রিস মিয়ার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় আব্দুল করিমের। এর জের ধরে ওইদিন সন্ধ্যায় সদর উপজেলার লালপুর গ্রামের পয়েন্টে তাকে একা পেয়ে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়। ওই দিন রাতে নিহতের বড় ভাই বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামি করে সুনামগঞ্জ সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত এ রায় দেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট প্রদীপ কুমার নাথ। রাষ্টপক্ষের আইনজীবী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এপিপি সুহেল আহমদ ছইল মিয়া। আসামিপক্ষের আইনজীবী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট হুমায়ুন মঞ্জুর চৌধুরী ও অ্যাডভোকেট আমিরুল হক। আসামি তিনজন বর্তমানে আটক রয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © sylhetfocusnews.com
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo