বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:০৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :::
সিলেটের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিলেট ফোকাস নিউজ ডটকম এর জন্য সিলেট বিভাগসহ দেশ বিদেশে সংবাদদাতা ও জেলা উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা ইমেইলে আপনাদের সিভি পাঠাতে পারেন।
শিরোনাম ::::
জগদীশ সামন্তের নৌকা মার্কার সমর্থনে সিলেটে মতবিনিময় সিলেট থেকে ছেড়ে যাওয়া চলতে ট্রেনএর বগির হঠাৎ দুই ভাগ! সিলেটে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে-নিহত ১ আহত ১৫ সিলেট মহানগর আঃলীগের সভাপতি মাসুক উদ্দিনের সাথে রিক্সা মালিক শ্রমিকদের মতবিনময় সিলেটের ৫৫টি স্কুলে গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’ বিতরণ করলো বিকাশ সিলেটে বাড়ি ছেড়ে ৪ যুবক নিখোঁজ সিলেটে ‘জাওয়াদ’র প্রভাব, শীত বাড়ার আভাস গোয়াইনঘাটে ২২৫ বোতল ভারতীয় মদসহ আটক ৩ জাফলংয়ে ওয়ার্ড যুবলীগের উদ্যোগে শহীদ শেখ ফজলুল হক মনি’র ৮৩-তম জন্মদিন পালিত সব সিটি করপোরেশনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া ক্ষমতায় থাকাকালে তারা কী করেছেন, বিএনপিকে তথ্যমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণতন্ত্রকে শৃঙ্খলমুক্ত করতে আন্দোলন করছেন’-ওবায়দুল কাদের বিশ্ব মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে দলিত জনগোষ্ঠীর ৮ দফা দাবিতে মানববন্ধন ফ্রেন্ডস পাওয়ার ক্লাবের একযুগ পূর্তি উৎসব পালন সেনাবাহিনী দেশে-বিদেশে তার উপর অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনে সক্ষম-জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমদ সিলেটেও ‘জাওয়াদ’র প্রভাব, দিনভর দেখা নেই সূর্যের খান বাহাদুর কল্যাণ ট্রাস্ট্র ও ইংল্যান্ডের আল মোস্তফা কল্যাণ ট্রাস্টের ফ্রি চক্ষু সেবা মেডিক্যাল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত গণমানুষের কবি দিলওয়ারকে নিবেদিত রচনা প্রতিযোগিতা বালাগঞ্জে কুশিয়ারা নদীর উপর সেতু নির্মানের স্থান পরিদর্শন-হাবিব ও নেছার আহমদ এম.পি কোন মুসলমান ইসলাম ছাড়া কারও মত গ্রহণ করতে পারে না : পীর সাহেব চরমোনাই
মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের প্রাথমিক তদন্ত শুরু আইসিসির

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের প্রাথমিক তদন্ত শুরু আইসিসির

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: দের বিরুদ্ধে নৃশংসতার প্রাথমিক তদন্ত (প্রিলিমিনারি প্রোব) করছে হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি)। মঙ্গলবার এই আদালতের প্রসিকিউটর ফাতু বেনসুদা এই তদন্ত শুরু করেছেন। এই তদন্তের ওপর ভিত্তি করে আইসিসি আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্ত করবে কিনা তা নির্ভর করে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের ওপর সেনাবাহিনী গত বছর ২৫ শে আগস্ট থেকে নৃশংসতা চালায়। তাতে বাধ্য হয়ে কমপক্ষে ৭ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিতে বাধ্য হন। এর প্রেক্ষিতে আইসিসির পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করার মতো যথেষ্ট প্রমাণ আছে কিনা তা প্রিলিমিনারি তদন্তে যাচাই করে দেখছেন ফাতু বেনসুদা। রোহিঙ্গাদের ওপর যেসব নির্যাতনের অভিযোগ আছে তার মধ্যে রয়েছে বিচারবহির্ভূত গণহত্যা, যৌন সহিংসতা, জোরপূর্বক দেশ থেকে বের করে দেয়া, নাগরিকত্ব থেকে বঞ্চিত রাখা, মুক্তভাবে চলাচল করা থেকে বঞ্চিত রাখা, মৌলিক মানবাধিকার থেকে বঞ্চিত রাখা।

প্রায় দু’সপ্তাহ আগে আইসিসির বিচারকরা রায় দেন যে, মিয়ানমারে সংঘটিত নৃশংসতার বিচার করার বিচারিক অধিকার রয়েছে আইসিসির।

মিয়ানমার আইসিসির সদস্য না হলেও তাদের বিরুদ্ধে বিচার করার এই অধিকার আছে। কারণ, রোহিঙ্গা নির্যাতনের ফলে তার বোঝা অকারণে বহন করতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। আর আইসিসির একটি সদস্য দেশ বাংলাদেশ। ওই রায়ে আরো বলা হয়, রোহিঙ্গা জাতি নিধনের লক্ষ্যে সেনাবাহিনী তাদের ওপর নির্যাতন চালিয়েছে। এ জন্য গণহত্যার অভিযোগে তাদের বিচার করার কথাও বলেন বিচারকরা।

এক বিবৃতিতে ফাতু বেনসুদা বলেছেন, তদন্ত প্রক্রিয়া আমি পরবর্তী প্রক্রিয়ায় নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পরিস্থিতি সম্পর্কে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রাথমিক তদন্ত করা হবে। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে যে কারণে বাধ্য করা হয়েছে দেশ ছাড়তে সে বিষয়ে মিয়ানমারের নৃশংস কর্মকান্ডের বিষয়ে যেসব অভিযোগ আছে তা প্রাথমিক তদন্রে আওতায় আসতে পারে। এর মধ্যে রয়েছে মৌলিক অধিকার থেকে রোহিঙ্গাদের বঞ্চিত রাখা, গণহত্যা, যৌন সন্ত্রাস, জোরপূর্বক গুম, ধ্বংসযজ্ঞ ও লুটপাট।

তিনি বলেছেন, এ ছাড়া রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে অন্য কোন অপরাধ ঘটানো হয়েছে কিনা তাও তিনি বিবেচনায় নেবেন। এর মধ্যে থাকতে পারে তাদের বিরুদ্ধে নির্যাতন বা বিচার ও মানবতা বিরোধী অপরাধ।

ওদিকে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে মানবাধিকার বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। তারা বলেছে, রোহিঙ্গাদের ওপর চালানো নির্যাতনের বিচারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি। তাদের এই উদ্যোগ মহতী। অ্যামনেস্টি টুইটারে এক বিবৃতিতে বলেছে, এই উদ্যোগকে সামনে এগিয়ে নিন। আন্তর্জাতিক আইনের অধীনে সব অপরাধের তদন্ত যাতে নিশ্চিত হয় সেজন্য মিয়ানমারের এই ইস্যুটি আইসিসিতে রেফার করা উচিত জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের।

ওদিকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী তাদের বিরুদ্ধে আনীত সব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে। তারা বলেছে, তারা শুধু ‘সন্ত্রাসী’দের মূলোৎপাটনের জন্য অভিযান চালিয়েছে। আইসিসি যে তাদের বিরুদ্ধে বিচারের কথা বলেছে তাও প্রত্যাখ্যান করেছে মিয়ানমারের সেনারা।

আইসিসির জন্য মিয়ানমার পরিস্থিতির তদন্ত বা বিচার একটি বিরাট বড় পদক্ষেপ। এই আদালত এখন পর্যন্ত আফ্রিকার সংঘাতগুলোতে তদন্ত করেছে। তবে এক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন ও ইসরাইলের মতো গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলো থেকে তাদের সমর্থনের ঘাতটি রয়েছে। আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের অভিযানের বিষয়ে যুদ্ধাপরাধের সম্ভাব্য তদন্তের কথা বলেছে আইসিসি। এ জন্য সম্প্রতি এই আদালতকে হুমকি দিয়ে সমালোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বল্টন। তিনি বলেছেন, আমাদের কাছে এই আদালত এরই মধ্যে মৃত। আর এই আদালতের বিচারকদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র অবরোধ দিতে পারে।

এর জবাবে কথা বলেছে আইসিসি। সেখান থেকে বলা হয়েছে, কারো ধমক উপেক্ষা করে তারা তাদের কাজ করে যাবে। এক্ষেত্রে অবলম্বন করা হবে মূল নীতি।

  •  
  •  
  •  
  •  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © sylhetfocusnews.com
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo