শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:১৭ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :::
সিলেটের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিলেট ফোকাস নিউজ ডটকম এর জন্য সিলেট বিভাগসহ দেশ বিদেশে সংবাদদাতা ও জেলা উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা ইমেইলে আপনাদের সিভি পাঠাতে পারেন।
শিরোনাম ::::
চাঁদপুরে বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ৩ বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন ফাউন্ডেশনের চিত্রাকংন প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী এডোরার ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও সেরিব্রাল পালসি ক্লিনিক উদ্বোধন সিলেট ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের শীতবস্ত্র বিতরণ ১২০০ দৌঁড়বিদ নিয়ে সিলেটে হলো ম্যারাথন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে সিলেট শহিদ মিনার ছাত্রদলের ‘হঠাৎ অবস্থান’ বোমা আতঙ্ক : মালয়েশিয়ান উড়োজাহাজে কোনো কিছু পাওয়া যায়নি এইচএসসি পরীক্ষা : ধরন বদলে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালাবে কাউন্সিলরসহ জোড়া খুনের মামলার প্রধান আসামি ‌‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত জগন্নাথপুরে বন্দুকযুদ্ধে আহত অর্ধশত, গুলিবিদ্ধ ৩০ সিলেটে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু দুনিয়ার ধ্যান-খেয়াল বিদায় করে দিয়ে আখেরাতের খেয়াল অন্তরে জায়গা দিন : পীর সাহেব চরমোনাই করোনা বাড়লে যেকোনো সময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবারও বন্ধ’ বাংলাদেশে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ খালেদা জিয়ার চিকিৎসা উপমহাদেশেও সম্ভব নয়: ড্যাব “সোনার মানুষ” সম্মাননায় ভূষিত হলেন লায়ন উজ্জ্বল কান্তি বড়ুয়া সিলেটের সব ইমিগ্রেশনে সতর্কতা জারি চট্টগ্রামের জাতিগত প্রাচীন সভ্যতা সংরক্ষণের দাবি ইতিহাস গবেষকদের সিলেট বাদাঘাট বাইপাস সড়ক চালুর দাবিতে মানবন্ধন সিলেট মহানগরীর ছোট-বড় সড়ক সংস্কারের দাবিতে সিসিক ও সওজ বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান
কামরানের ‘পরাজয়ের’ পেছনে যতো কারণ

কামরানের ‘পরাজয়ের’ পেছনে যতো কারণ

ফোকাস ডেস্ক::নির্বাচন কমিশন আনুষ্ঠানিক বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরীকে মেয়র পদে জয়ী ঘোষণা করেনি। তবে যে কঠিন সমীকরণের মধ্যে আছেন আওয়ামী লীগ নেতা বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, তাতে তার পক্ষে মেয়র পদে জয়ী হওয়া অনেক বেশিই কঠিন। মূলত সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে জয় দেখছেন আরিফ। এখন আনুষ্ঠানিকতাটুকুই শুধু বাকি।

সুবিধাজনক অবস্থানে থেকেও কামরানের পরাজয়ে হতাশ আওয়ামী লীগ। সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন দলীয় নেতাদের প্রতি সন্দেহ, অতিরিক্ত আত্মবিশ^াস আর দলের কতিপয় কাউন্সিলর প্রার্থীদের বিশ^াসঘাতকতা কামরানকে পরাজয়ের দিকে ঠেলে দিয়েছে।

এবার ছিল সিসিকের চতুর্থ নির্বাচন। গেল তিন নির্বাচনে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান দুবার এবং বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী একবার মেয়র পদে বিজয়ী হন। এবারের নির্বাচনে আরিফের চোখ ছিল কামরানকে ছোঁয়া, তথা টানা দুবার মেয়র পদে বিজয়ী হওয়া। সে লক্ষ্যে শেষপর্যন্ত জয়ী ব্যক্তির নাম আরিফ।

১৯৭৩ সাল থেকে নির্বাচনী রাজনীতির সাথে জড়িত বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। তিনবার কমিশনার, একবার পৌর চেয়ারম্যান, টানা দুবার মেয়র হওয়ার গৌরব তার। কামরানের তুলনায় নির্বাচনী রাজনীতির মাঠে আরিফ যোজন যোজন ব্যবধানে পিছিয়ে। তবু সেই আরিফের কাছেই টানা দুবার মেয়র পদে হার মানলেন কামরান। বিশেষ করে এবারের পরাজয় কামরানের জন্য নিদারুণ হতাশার বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিগত নির্বাচনে দলীয় কোন্দল কামরানের পরাজয় তরান্বিত করেছিল। কিন্তু এবার দল প্রকাশ্যে ঐক্যবদ্ধ থাকার পরও হেরেছেন তিনি। ক্ষমতাসীন দলের এই নেতার পরাজয়ের কারণকে বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে দেখছেন বিশ্লেষকরা। তার পরাজয়ের নেপথ্যে দলীয় নেতাদের প্রতি সন্দেহ, অতিরিক্ত আত্মবিশ^াস, ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ওপর আস্থা, দলের কতিপয় কাউন্সিলর প্রার্থীদের বিশ^াসঘাতকতা, শীর্ষ নেতাদের কেন্দ্রে নৌকার পরাজয় প্রভৃতি কারণগুলোকেই দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিশ্লেষকদের মতে, এবার নির্বাচনের আগেভাগেই সিলেট আওয়ামী লীগের নেতাদের ডেকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার নির্দেশ দেন দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা। সে নির্দেশের ফলে নির্বাচনের মাঠে নেতারা ছিলেন ঐক্যবদ্ধ। কিন্তু তারপরও বিগত নির্বাচনের তিক্ত অভিজ্ঞতার ফলে কামরান এবার দলের নেতাদের প্রতি সন্দেহ মনোভাব পোষণ করেন। এক নেতার কাছ থেকে গোপনে অপর নেতার গতিবিধি সম্পর্কে খবর নিতেন তিনি। এ বিষয়টি ক্রমেই জানাজানি হওয়ার ফলে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই কামরানের প্রচারণা থেকে নিজেকে কিছুটা গুটিয়ে রাখেন। যার প্রভাব পড়েছে নির্বাচনের ফলাফলে।

আওয়ামী লীগ নেতাদের মতে, কামরান নিজে খুলনা ও গাজীপুর সিটি নির্বাচনের বিষয়টি মাথায় রেখে সিলেটেও সেরকম কিছু হওয়ার আশায় ছিলেন। তিনি মনে করেছিলেন নৌকা প্রতীকের পক্ষে ইঞ্জিনিয়ারিং হবে, তার বিজয় তাই সুনিশ্চিত। এর ফলে অতিরিক্ত আত্মবিশ^াস ছিল কামরানের, যা শেষপর্যন্ত হিতে বিপরীত হয়েছে। এবারের নির্বাচনে সিলেট আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী ও মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদের কেন্দ্র ছাড়া বাকি শীর্ষ নেতাদের কেন্দ্রে পরাজয় ঘটেছে নৌকা প্রতীকের।

এছাড়া আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজের কেন্দ্রে দুটি বুথে ধানের শীষ ১৪৫২ ভোট পেলে নৌকা পায় মাত্র ৬৫৩ ভোট, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লুৎফুর রহমানের কেন্দ্রে নৌকা ২৬০ ভোট পেলেও ধানের শীষ পায় ৫০৯ ভোট, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম নাদেলের কেন্দ্রে ধানের শীষ ১৩০৮ ভোট পেলেও নৌকা পায় মাত্র ৫৬৬ ভোট। নেতাদের কেন্দ্রে নৌকার পরাজয় সার্বিক ফলাফলে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।

নির্বাচনে কামরান যাদেরকে এজেন্ট নিয়োগ করেছিলেন, তাদের সঠিকভাবে যাচাইবাছাই করেননি। এজেন্টদের অনেকেই ছিলেন বিএনপি সমর্থক। এছাড়া ভোটের দিন নগরীর কাজী জালাল উদ্দিন উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রসহ কয়েকটি কেন্দ্রে বুকে নৌকা প্রতীকের কার্ড ঝুলিয়ে কেন্দ্র দখল করে ধানের শীষ প্রতীকে সিল মারার ঘটনাও ঘটেছে। যা কামরানের পরাজয়কে তরান্বিত করেছে।

সামগ্রিক বিষয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘সারাদেশের মতো সিলেটেও বর্তমান সরকার উন্নয়ন কাজ করেছে। সিলেট নগরীর উন্নয়নে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত টাকা দিয়েছেন, কাজ করেছেন আরিফ। মানুষের কাছে অর্থমন্ত্রী নন, আরিফই দৃশ্যমান ছিলেন। তাই মানুষ মনে করেছে, আরিফকে ভোট দিলে ভালো হবে।’

  •  
  •  
  •  
  •  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © sylhetfocusnews.com
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo