মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:২৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :::
সিলেটের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিলেট ফোকাস নিউজ ডটকম এর জন্য সিলেট বিভাগসহ দেশ বিদেশে সংবাদদাতা ও জেলা উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা ইমেইলে আপনাদের সিভি পাঠাতে পারেন।
শিরোনাম ::::
কানাইঘাটে পরকীয়ার জেরে যুবক খুন ঘাসিটুলা জামেয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় ওয়াশ ব্লকের উদ্বোধন করলেন মেয়র আরিফ সিসিকে সিএলসিসি’র প্রথম সভা অনুষ্ঠিত শহীদ মিনারে সিলটি পাঞ্চায়িত’র জনসভা অনুষ্ঠিত রাজারগলি সমাজ কল্যাণ সংঘের সংবর্ধনা প্রদান ছোট ভাইকে শাবলের আঘাতে খুন -র‍্যাব‌‌’র হাতে গ্রেফতার রিপন চেম্বার ওয়েলস এর উদ্যোগে গ্র্যান্ড সিলেটে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত কাতার বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে আয়োজিত কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ গোয়াইনঘাটে চুরি হওয়া সিএনজিসহ ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ খেলাফত মজলিসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল এমসি কলেজের ছাত্রীকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার, হাতের ফাইলে মিলেছে চিরকুট সিলেটে সাংবাদিকদের সাথে স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের অসদাচরণ সিলেটে বৃদ্ধি পেয়েছে রেকর্ড সংখ্যক জিপিএ-৫ দেশে সরকার পতন আন্দোলনের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে-আরেফিন জিল্লুর জিপিএ-৫ অর্জন করেছে রওনক নওশীন সাদিবা চা শ্রমিকের ১০ দফা বাস্তবায়ন সংগ্রাম কমিটির কনভেনশন অনুষ্টিত সিলেটের বিএনপি নেতা বদরুজ্জামান সেলিম কারাগারে জাতীয় ইমাম সমিতি দক্ষিণ সুরমা উপজেলা কমিটি গঠিত কেমুসাসে সিলেট ক্যালিগ্রাফি সোসাইটির ক্যালিগ্রাফি প্রদান ভারত থেকে এলসি পাথরের সাথে আসা অবিস্ফোরিত বোমায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু
আজ ৫ ডিসেম্বর ‘জুড়ী মুক্ত দিবস’

আজ ৫ ডিসেম্বর ‘জুড়ী মুক্ত দিবস’

জুড়ী প্রতিনিধি :: ৫ই ডিসেম্বর মৌলভীবাজারের জুড়ীর ইতিহাসে এক স্মরণীয় দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর কবল থেকে জুড়ী এলাকা (বর্তমান জুড়ী উপজেলা) মুক্ত হয়।

১৯৭১ সালের ১ ও ২ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা ও মিত্র বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে মুক্তিযুদ্ধের ৪নং সেক্টরের রানীবাড়ী সাব-সেক্টরের অধীনস্থ সকল ক্যাম্পের মুক্তিযোদ্ধারা দেশের অভ্যন্তরে প্রবেশের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করে। ৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় ভারতের বাগপাশা থেকে অগ্রসর হয়ে রাঘনা নামক স্থানে ভারত-বাংলাদেশের সীমানা নির্ধারণকারী জুরী নদীর উপর অস্থায়ী সেতু নির্মান করে। এই সেতু দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে মুক্তিযোদ্ধা ও মিত্র বাহিনী সীমান্তবর্তী ফুলতলা ইউনিয়নের ফুলতলা বাজার বিনা বাধায় দখল করে নেয়।

রাতের মধ্যেই পার্শ্ববর্তী সাগরনাল ইউনিয়নের ডিফেন্সও মুক্তিবাহিনীর দখলে চলে আসে। এখানে মুক্তিবাহিনীর ক্যাপ্টেন সুখ লালসহ কিছু সংখ্যক সৈন্য রয়ে যান, বাকিরা জুড়ীর দিকে অগ্রসর হতে থাকেন। রত্না চা বাগানের কাছে এসে পাকিস্তানী বাহিনী কর্তৃক বাধাপ্রাপ্ত হলে উভয় পক্ষের মধ্যে কয়েক দফা গুলি বিনিময়ের পর পাকিস্তানী বাহিনী পিছু হটে কাপনাপাহাড় চা বাগানের নিকট চলে যায়। যৌথ বাহিনীও এখানে ডিফেন্স নেয়।

পরদিন দিনভর পাকিস্তানী বাহিনীর সঙ্গে প্রচন্ড যুদ্ধ চলে। এতে উভয়পক্ষের বেশ কিছু সৈন্য হতাহতের পর ঐ রাতে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী জুড়ীর দিকে পালিয়ে যায়। কাপনাপাহাড় থেকে যৌথবাহিনীর সৈন্যরা দুইভাগে বিভক্ত হয়ে একদল কুলাউড়া শত্রুমুক্ত করার উদ্দেশ্যে গাজীপুর চা বাগানের রাস্তা ধরে কুলাউড়ার দিকে অগ্রসর হতে থাকে। অপর দল জুড়ীর দিকে এগিয়ে যায়।

পরদিন ৪ ডিসেম্বর ভারতের কুম্ভিগ্রাম বিমানবন্দর থেকে কয়েকটি যুদ্ধ বিমান যৌথবাহিনীর সমর্থনে এসে জুড়ী ও কুলাউড়াতে সেলিং করতে থাকে। বিমান বাহিনীর সেলিংয়ের মুখে জুড়ীতে অবস্থানরত পাকিস্তানী দখলদার বাহিনী টিকতে না পেরে রণে ভঙ্গ দিয়ে ঐ রাতে পালিয়ে যায়। শত্রুমুক্ত হয় জুড়ী।

মুক্তিযোদ্ধারা লাল-সবুজ পতাকা হাতে নিয়ে শহরে প্রবেশ করে জয়বাংলা শ্লোগানে মুখরিত করে তোলেন গোটা অঞ্চল।

  •  
  •  
  •  
  •  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © sylhetfocusnews.com
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo